ছাগলের বিভিন্ন বৈশিষ্ট


ছাগল পুষার লাভজনক দিক

ছাগল পুষার প্রধান লাভজনক দিক হলো এটা পুষতে খরছ খুব কম হয়;
কম সময়ে লাভজনক অবস্থায় এটা বিক্রির উপযুগি হয়ে থাকে;
এমনকি খুব কম সময়ের মধ্যে ছাগলের পাল বাড়ানোর সুযোগ থাকে;
(১) ভালো একটা ছাগলের দাম মুটামুটি সাধারণের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে;
(২) থাকবার আলাদা জায়গা এবং ঐ সংক্রান্ত বিশেষ কুনো খরছ নাই;
(৩) ১ কেজি দুধ দিলে তেমন কুনো বাড়তি খরছ নাই

কেন ব্ল্যাক বেঙ্গল ছাগল?

এরা রুগে কম আক্রান্ত হয় এবং বেশি বাচ্চা দেয়

ব্ল্যাক বেঙ্গল প্রজনন

উন্নত দেশীয় ব্ল্যাক বেঙ্গল ছাগল দ্বারা প্রজনন করা হয়

ছাগলের প্রজনন ফি

১০০০ টাকা

(৪) অল্প ও মধ্যম বয়সের ছেলেরা ছাগল রাখতে পারে (৫) ছাগলের মারাত্বক কুনো রুগ হলে বা জটিল স্ত্রী রুগ হলে, সেই ছাগল কেটে মাংস বিক্রি করা যায়, এতে মাংস ক্রেতাদের কুনো আপত্তি থাকে না, ক্ষতি ও করে না (৬) মর্দা ছাগল ৩ বৎসর বয়সেই তার সন্তানদের কর্মক্ষমতা বের করা যায় (৭) এড়ে বচ্চা কুনো সমস্যা নয়, ১ টা সংকর ( কালো ও বারবারী ) খাসি ও পাঠা বাচ্চার মূল্য ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে (৮) ছাগল একাধিক বচ্চা প্রসব করে থাকে (৯) বৎসরে দুধ দেয় ৫০ থেকে ১০০ কেজি (১০) ১০ থেকে ১২ মাসে গর্ভবতি হয়ে থেকে (১১) গর্ভ কাল সময় ১৪৫ থেকে ১৫০ দিন (১২) অনায়াসে বৎসরে ২ বার বচ্চা দেওয়া সম্ভব (১৩) ছাগলের দুধ খুবই উপকারী যেমন : বাচ্চা,রুগী ও বুড়োরা অনেক সময় গরুর দুধ হজম করতে পারে না কিন্তু ছাগলের দুধ হজম করতে পারে (১৪) ছাগলের ডাক আসার পর পাঠা ধারা প্রজনন করতে হয়, স্থানীয় পাঠা ধারা এই প্রজনন করলে হয়তো একটু খরচ হতে পারে বিঃদ্রঃ- উপদেশ : পাঠার ১ম শট দেওয়ার পরে ১ ঘন্টা বিরতি, তার পরে ২য় শট দিয়ে প্রজনন প্রক্রিয়ার কাজ শেষ (১৪ ক ) পাঠা কেবিনে রাখা হবে, খাবার ও পানির সুবেবস্তা থাকবে, বাইরের কেউ ছাগল এনে প্রজনন করতে চাইলে প্রজনন ফি ১০০০ টাকা পরিশুধ করিতে হবে

ছাগল পালনের সুবিধাদি:


ছাগল পালনে কি কি সুবিধা?

* ছুটো প্রাণীর খুরাক তুলনামূলক ভাবে অনেক কম
* পালনের জন্য অল্প জায়গা লাগে, এবং মূল ধন ও কম লাগে
* গবাদি পশুর তুলনায় ছাগলের রুগ বালাই কম হয়
* কম সময়ে অধিক সংখক বচ্চা পাওয়া যায়
* বৎসরে ২ বার বচ্চা প্রসব করে এবং প্রতিবারে গড়ে ২/৩ টি বচ্চা হয়ে থাকে
* দেশে বিদেশে ব্ল্যাক বেঙ্গল ছাগলের চামড়া , মাংশ ও দুধের বিপুল চাহিদা রয়েছে
* ছাগলের দুধ যক্ষ্মা ও হাঁফানি রোগ প্রতিরোধ করে, ছাগলের দুধের যথেষ্ট চাহিদা রয়েছে
* ছাগল ভূমিহীন ও মাজারি চাষিদের অতিরিক্ত আয়ের উৎস

ছাগল ক্রয়

উত্তম প্রজননের জন্য ভালো দেখে ছাগল ক্রয় করিতে হইবে

পাঠার ক্ষেত্রে:

পাঠার বয়স ১২ মাসের মধ্যে, অন্ডোকোষের আকার বড়ো এবং সুগঠিত, পিছনের পা সুঠাম এবং শক্তিশালী

ছাগীর ক্ষেত্রে:

অধিক উৎপাদনশীল বংশের এবং আকারে বড়ো, ৯ বা ১২ মাসের

ছাগল ক্রয়ের গুণাবলী:

পাঠার ক্ষেত্রে:

* পাঠার বয়স ১২ মাসের মধ্যে হতে হবে, অন্ডোকোষের আকার বড়ো এবং সুগঠিত হতে হবে, পিছনের পা সুঠাম এবং শক্তিশালী হতে হবে


ছাগীর ক্ষেত্রে:

* নির্বাচিত ছাগী হবে অধিক উৎপাদনশীল বংশের এবং আকারে বড়ো
* ৯ বা ১২ মাসের ছাগী কিনতে হবে
* ছাগীর পেট তুলনামূলক ভাবে বড়ো, পাঁজরের হাড়, চামড়া প্রসারিত ও দুই হাড়ের মাজখানে কমপক্ষে ১ আঙ্গুল ফাঁকা জায়গা থাকতে হবে
* নির্বাচিত ছাগীর ওলান সুগঠিত ও ব্যাট সামজ্ঞস্য পূর্ণ হতে হবে

Facilities for raising goats


What are the advantages of having goats as pets?

* Compared to other animals, stray animals have a considerably smaller diet
* It takes up less space and costs less money to keep
* Diseases do not affect goats as much as they do cattle
* In shorter time, more babies are available
* She gives birth twice a year on average, with two-thirds of the babies born each time
* Black Bengal goat skin, flesh, and milk are in high demand both domestically and internationally
* Because goat's milk helps to prevent tuberculosis and respiratory disorders, it is in high demand
* Landless and middle-class farmers can supplement their income by raising goats

Purchase of a goat

Goats should be purchased for breeding purposes.

Foe male Goat:

The testicles are huge and well-formed by the age of 12 months, and the hind legs are straight and robust

For Female Goat:

9 or 12 months, more productive breed and larger in size

Purchase attributes of goats:

For Male Goat:

* Testicles should be large and well-formed at less than 12 months of age, and hind legs should be well-formed and muscular

For Feale Goat:

* The goat chosen will be a more productive breed with a larger size
* A 9- or 12-month-old goat should be purchased
* The goat's abdomen should be rather large, the ribs should be expanded, and there should be at least one finger between the two bones
* The goat you choose should be well-groomed and have plenty of bat adjustment

ছাগলের বয়স নির্ণয়:


ছাগলের দাঁত দেখে বয়স নির্ধারণ?

* ছাগলের দাঁত দেখে বয়স নির্ধারণ করতে হয়,
* বয়স ১২ মাসের নিচে হলে দুধের সব গুলো দাঁত থাকবে,
* ১২-১৫ মাস বয়স হলে স্থায়ী দাঁত এবং
* ৩৭ মাসের উর্ধে বয়স হলে ৪ জুড়া স্থায়ী দাঁত থাকবে

পরিবহনের পূর্বে

ছাগলকে পর্যাপ্ত পরিমান লবন ও চিটাগুড় মিশ্রিত পানি খাওয়াতে হবে

খাবার মিশ্রণ:

( পানি ১ লিটার, লবন ১০ গ্রাম ও চিটাগুড় ৩০ গ্রাম )

পরিবহন করবেন না :

যখন অতিরিক্ত গরম , ঠান্ডা কিংবা ঝড় বৃষ্টি

বাছাইকৃত ছাগলের পরিবহন ব্যবস্তা:

* নিৰ্বাচিত ছাগলকে পূর্বে পিপিআর ভেকসিন দেয়া না থাকলে , পরিবহনের ২১ দিন পূর্বে পিপিআর ভেকসিন দিতে হবে
* পরিবহনের পূর্বে ছাগলকে পর্যাপ্ত পরিমান লবন ও চিটাগুড় মিশ্রিত পানি ( পানি ১ লিটার, লবন ১০ গ্রাম ও চিটাগুড় ৩০ গ্রাম ) খাওয়াতে হবে
* অতিরিক্ত গরম , ঠান্ডা কিংবা ঝড় বৃষ্টিতে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় পরিবহন করা মোটেও উচিত নয় !


ছাগলের বাসগৃহ:


পরিষ্কার পরিছন্ন ঘর?

* ছাগলের ঘর শুস্ক , উঁচু , পানি জমে না এমন স্থানে করা উচিত,
* পূর্ব - পশ্চিমে লম্বা - লম্বি , দক্ষিণ দিক খুলা এমন করতে হবে,
* এ ক্ষেত্রে কাটাল , ইপিল , কাসাভা , ইত্যাদি গাছ লাগানো যেতে পারে,
* ছাগল ঠাসা ঠাসি অবস্থায় বাস করতে পছন্দ করেনা,
* এরা মুক্ত আলো-বাতাস এবং পরিষ্কার পরিছন্ন স্থানে থাকতে পছন্দ করে,
* জুড়া ছাগলের জন্য ৫ ফুট লম্বা, ১-৫ ফুট চওড়া এবং ৬ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট জায়গা প্রয়োজন,
* প্রতিটি পূর্ণ বয়স্ক ছাগলের জন্য গড়ে (১০-১৪) বর্গফুট এবং বাচ্চার জন্য (৩-৮) বর্গফুট জায়গার প্রয়োজন,
* ছাগল খাঁচার প্রাণী, মাচার উচ্চতা ১ মিটার (৩.৩৩) ফুট এবং মাচা থেকে ছাদের উচ্চতা ৮ ফুট হতে হবে,
* শীতকালে রাতের বেলায় মাচার উপরের নেটে চট দিয়ে ঢেকে দিতে হবে,
* পাঠার জন্য অনুরূপ ব্যবস্তা করতে হবে,
* প্রতিদিন ১ বার ছাগলের ঘর পরিষ্কার করতে হবে,
* কুনো ছাগল অসুস্থ হলে, আইসোলেশন শেডে রেখে চিকিৎসা করতে হবে,
* কুনো ছাগল মারা গেলে মাটিতে গর্ত করে পুঁতে ফেলতে হবে,


জুড়া ছাগলের ঘর

৫ ফুট লম্বা, ১-৫ ফুট চওড়া এবং ৬ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট জায়গা প্রয়োজন

পূর্ণ বয়স্ক ছাগলের জন্য

(১০-১৪) বর্গফুট এবং বাচ্চার জন্য (৩-৮) বর্গফুট জায়গার প্রয়োজন

মাচার উচ্চতা ১ মিটার (৩.৩৩) ফুট

এবং মাচা থেকে ছাদের উচ্চতা ৮ ফুট হতে হবে,

মাচার কাঠের সাইজ:

* মাচার কাঠের সাইজ ১.৫ ইঞ্চি - ২ ইঞ্চি এবং লম্বা ৪.৫ ফুট
* খাঁচার ছাগলের লেদের চেয়ে একটু বড়ো ফাক রাখতে হবে
* ৬০ ফুট - ২২ ফুট ঘরে ১০০ টি ছাগল রাখা যাবে


সুস্থ ছাগলের বৈশিষ্ট:


সুস্থ ছাগলের

* নাড়ির স্পন্দন প্রতি মিনিটে (৭০-৯০) বার,
* শ্বাস - প্রোশ্বাস প্রতি মিনিটে (২৫-৪০ বার),
* স্বাভাবিক তাপমাত্রা - ৩৯.৫ সেঃ,
* সুস্থ ছাগল দলবদ্ব ভাবে চলা ফেরা করে ,
* মাথা সব সময় উঁচু থাকে, নাসারন্দ থাকবে পরিষ্কার,
* চামড়া নরম, পশম মসৃন ও চকচকে দেখাবে এবং পায়ু অন্চল থাকবে পরিছন্ন,


ছাগল সুস্থ রাখতে যে সব বেবস্থাদি গ্রহণ করা আবশ্যক সে গুলোর মধ্যে রয়েছে:

*

ভাইরাস জনিত রোগ: পিপিআর, গুটপক্স , ক্ষুরা রোগ ইত্যাদি
* ভেক্টেরিয়া জনিত রোগ: যেমন - এনটেক্স, বর্সসেলোসিস ইত্যাদি খুবই মারাত্মক বলে এ গুলোর বিরুদ্দে যথা রীতি টিকা দিতে হবে
* বাচ্চার ২/৩ মাস হলেই পিপিআর ও অন্যান্ন প্রয়োজনীয় ভেকসিন দিতে হবে


কৃমি নাশক ঔষধ প্রয়ুগ:

সকল ছাগলকে নির্ধারিত মাত্রায় বৎসরে ২ বার কৃমি নাশক ঔষধ প্রদান করিতে হইবে

ভাইরাস জনিত রোগ:

পিপিআর, গুটপক্স , ক্ষুরা রোগ ইত্যাদি

ভেক্টেরিয়া জনিত রোগ:

এনটেক্স, বর্সসেলোসিস ইত্যাদি খুবই মারাত্মক বলে এ গুলোর বিরুদ্দে যথা রীতি টিকা দিতে হবে
* বাচ্চার ২/৩ মাস হলেই পিপিআর ও অন্যান্ন প্রয়োজনীয় ভেকসিন দিতে হবে

ছাগলের শিং তুলার কাজ: :

* বচ্চা জন্মের ৫ দিন পরে বাচ্চাগুলির শিং তুলার কাজ সেরে নিতে হবে
* গরুর মতো কস্টিক পটাশ বা, কস্টিক সুডা দিয়ে করতে হবে,
* বাচ্চার বয়স ৩-৫ সপ্তাহ হলে শিং তুলা বন্দ করা উচিত
* ছাগলের খড়ের বাড়তি অংশ হেক্স ব্লেইড দিয়ে কেটে পরিষ্কার করে রাখতে হবে


ছাগলের খাবার খড়ের মিশ্রণ:


খাদ্য ব্যবস্থাপনা:

* ছাগলকে রাস্তার ধার, পুকুর পার, জমির আইল, পতিত জমি, পাহাড়ের ডালে বেঁধে বা, ছেড়ে ৮/৯ ঘণ্টা ঘাস খাওয়াতে পারলে খুব উপকার হবে,
* এ ধরণের সুযোগ না থাকলে, প্রতি ২০ কেজি ওজনের ছাগলের জন্য (০.৫ - ১) কেজি পরিমান কাঁঠাল পাতা, ইপিল পাতা, ঝিগা পাতা বা বাবলা পাতা দেয়া যেতে পারে
* বর্ষাকালে ছাগলকে ইউরিয়া-চিটাগুড় মিশানো খড় নিম্নুক্ত প্রণালীতে বানিয়ে খাওয়াতে হবে


উপকরণ :

* ২/৩ ইঞ্চি মাপের কাঠা খড় ১ কেজি, চিটাগুড় ২২০ গ্রাম, ইউরিয়া ৩০ গ্রাম , এবং পানি ৬০০ গ্রাম
* এবার পানিতে ইউরিয়া গুলে তাতে চিটাগুড় দিয়ে খড়ের সাথে মিশিয়ে সরাসরি ছাগলকে দিতে হবে
* খাসির ক্ষেত্রে : ৩/৪ মাস বয়সে দুধ ছাড়ানোর পর, নিয়মিত সঠিকভাবে এই প্রক্রিয়াজাত খাদ্য খাওয়ালে ৬০ গ্রাম করে দৈনিক ওজন বাড়ে
* ১ বৎসরের মধ্যে ১৮-২২ কেজি ওজন প্ৰাপ্ত হয়ে থাকে


ছাগলের পরিচয়:

* ছাগলের মা ও বাচ্চার পরিচয় রাখা জরুরি,
* জন্মের তারিখ, ভেকসিন ও টিকা প্রদানের তারিখ খাতায় লিখে রাখতে হবে


খড়ের মিশ্রণ খাওয়ালে:

খাসির ক্ষেত্রে : ৩/৪ মাস বয়সে দুধ ছাড়ানোর পর, নিয়মিত খাওয়ালে ৬০ গ্রাম করে দৈনিক ওজন বাড়ে

নিয়মিত খাওয়ালে:

১ বৎসরের মধ্যে ১৮-২২ কেজি ওজন প্ৰাপ্ত হয়ে থাকে

ছাগলের জন্য লাভজনক:

খড়ের মিশ্রণ ছাগলের পুষ্টির জন্য অনেক উপকারী

ছাগলের খাদ্য? :

খাদ্য বেবস্থাপনা
* ছাগলকে রাস্তার ধার, পুকুর পার , জমির আইল , পতিত জমি, পাহাড়ের ডালে বেঁধে বা ছেড়ে ৮/৯ ঘণ্টা খাওয়াতে পারলে উপকার হবে
* এ ধরণের সুজুগ না থাকলে, প্রতি ২০ কেজি ওজনের ছাগলের জন্য দৈনিক ০.৫ কেজি পরিমান কাটাল পাতা , ইপিল ইপিল পাতা , ঝিকা পাতা, বাবলা পাতা দেয়া যেতে পারে
* বর্ষকালে ছাগলকে ইউরিয়া-চিটাগুড় মিশানো খড় নিম্নুক্ত প্রণালীতে বানিয়ে খাওয়াতে হবে
* উপকরণ:
* ২/৩ ইঞ্চি মাপের কাটা খড় ১ কেজি, চিটাগুড় ২২০ গ্রাম, ইউরিয়া ৩০ গ্রাম এবং পানি ৬০০ গ্রাম, এগুলো ভালোভাবে মিশিয়ে ছাগলকে খাওয়াতে হবে
* খাসির ক্ষেত্রে:
* ৩/৪ বয়সে , দুধ ছাড়ানোর পর নিয়মিত সঠিকভাবে এই প্রক্রিয়াজাত খাদ্য খাওয়ালে ৬০ গ্রাম করে দৈনিক ওজন বাড়ে
১ বৎসরের মধ্যে ১৮-২২ কেজি ওজন প্রাপ্ত হয়ে থাকে

বাণিজ্যিক ছাগল:


নতুন ছাগলের ব্যাবসা করিতে:

* সঠিক অনুপাতে ( ১০ টি ছাগী ও ১ টি পাঠা যথেষ্ট )
* পাঠা ও ছাগীকে কখনো একত্রে খাদ্য খেতে ও মাঠে চরানো যাবে না
* পাঠা - ছাগীকে খাদ্য খেতে অসুবিধার সৃষ্টি করে, মারা মারি করে , ক্ষতের সৃষ্টি করে


ম্যালাথিয়ন দ্রবণে গোসল করাতে হবে:

* প্রজননক্ষম পাঠা ও ছাগীকে নিয়মিত (বছরে ৪/৫ বার) ০.৫% ম্যালাথিয়ন দ্রবণে চুবিয়ে বহিঃপরজীবী থেকে মুক্ত রাখতে হবে
* বাচ্চার ক্ষেত্রে যাতে উক্ত দ্রবণ নাকে বা কানে যেন প্রবেশ করতে না পারে, সেইদিকে খেয়াল রাখতে হবে
* গর্ভের ১ম মাসে (১-১.৫) মিলি ভিটামিন এ,ডি,ই এবং গর্ভের শেষ ২য় সপ্তাহে (১-১.৫) মিলি ৪৮ ঘন্টা পর পর ইনজেকশন দিতে হবে
* প্রসবের লক্ষন দেখা দিলে, ছাগীর পিছনের অংশ ও ওলান পটাশিয়াম পারম্যাঙ্গানেট (০.৫- ১%) দিয়ে ধুয়ে মুছে দিতে হবে
* বচ্চা প্রসবের পরে জীবাণুমুক্ত ব্লেড বা চাকু ধারা ২/৩ সেঃ নাড়ী রেখে, বাকি অংশ কেটে দিতে হবে
* প্রসবের ২৪ ঘন্টার পর ও ফুল বা প্যাসেন্টা, না পড়লে অক্সিটোসিন, মাত্রা (১-২) মিলি ইনজেকশন দিতে হবে


পারা, নেপিয়ার ও টাটু ঘাসের চাষ:

পুকুরের পাড়ে ও নদীর পাড়ের উঁচু জমিতে এই ঘাস চাষ করে খাদ্যের অনেকটা চাহিদা মিটানো যায়

ছাগলের কৃমি নাশ:

প্রজনন করানোর আগে ছাগীর কৃমিনাশ করানো উচিত
গর্ভবতী ছাগীকে প্রস্রবের ২/৩ সপ্তাহ আগে কৃমিনাশ করাতে হবে

কৃমি আক্রান্ত ছাগলরা রুগা ও নিস্তেজ হয়:

ছানাদের ১ মাস বয়সে কৃমির ঔষধ দিতে হবে

ছাগলের প্রজনন পরিচালনা:

প্রজননের জন্য
* প্রজননের জন্য দ্রুত ও বড়ো আকারের ছাগল ব্যবহার করতে হবে
* প্রতি ১৮ থেকে ২১ দিনে ছাগলের কামোত্তেজনা বা, ঋতুকাল আসে,
* এবং (২৪-৭২) ঘন্টা স্থায়ী থাকে
* কামোত্তেজনার সময় ছাগিরা সরব হয়ে উঠে,
* খুব জুরে জুরে ডাকতে থাকে, অবিরাম এ পাশ ও পাশ লেজ নাড়তে থাকে,
* যৌনিদ্বার সামান্য ফুলা ও লালচে দেখাবে,
* এবং যৌনি থেকে স্রাব হওয়ার দরুন লেজের চার পাশের এলাকাটা ভেজা ও নোংরা দেখা যায়,
* ক্ষিদে কমে যায় এবং প্রস্রাব ঘন ঘন হয়,
* ঋতুর লক্ষন দেখা দেওয়ার (১২-১৮) ঘন্টার মধ্যে প্রজনন করানো উচিত
* ঋতুকাল ২/৩ দিন স্থায়ী থাকে
* গর্ভকাল ১৪৫-১৫০ দিন, তবে ১ সপ্তাহ আগে বা পরে হওয়া স্বাভাবিক,
* আগে থেকে তৈরী থাকা ভালো


ছাগলের আয়ু:


ছাগল অন্য তত্ত:

* ছাগীর দুগ্ধবতি কাল (৯০-১০০) দিন
* ছাগী প্রথম গরম হওয়ার বয়স ৮-১২ মাস
* ছাগী গরম হওয়ার স্থায়ীকাল ১-২ দিন
* ছাগীর গর্ভ সঞ্চার না হলে পুনরায় ঋতু আরম্ব হয় ১৭-২১ দিনে
* বচ্চা প্রসবের যতদিন পরে পুনরায় ঋতু আরম্ব হয় ৪-৬ মাস


ছাগলের আয়ু

ছাগলের আয়ু (১২ থেকে ১৫ বৎসর)

(ছাগলে ওজন):

ছাগলের বুকের সাইজ-

২৫" হলে ১৯ কেজি ওজন
২৬" হলে ২০ কেজি ওজন
২৭" হলে ২১ কেজি ওজন
৩১" হলে ৩০ কেজি ওজন
৩২" হলে ৩২ কেজি ওজন
৩৩" হলে ৩৫ কেজি ওজন
৩৪" হলে ৩৯ কেজি ওজন
৩৫" হলে ৪৩ কেজি ওজন
৩৬" হলে ৪৯ কেজি ওজন
৩৭" হলে ৫৪ কেজি ওজন
৩৮" হলে ৫৯ কেজি ওজন
৩৯" হলে ৬৪ কেজি ওজন
৪০" হলে ৬৯ কেজি ওজন

(১ কেজি = ২.২ পাউন্ড)

ছাগল ছানাদের টিকা? :

ছাগল ছানাদের টিকা দান
* ছাগল ছানাদের এন্টারটেকসমিয়া ও টিটেনাসের ১ম ডোজ ৮ সপ্তাহ বয়সে
* এবং আবার ১২ সপ্তাহ বয়সে দিতে হবে
* ছাগীর প্রজনন কালের ৪/৬ সপ্তাহ আগে টিটেনাসের টিকা দিতে হবে
* পাঠাদেরকে বৎসরে ১ বার টিটেনাসের টিকা দিতে হবে


Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol

Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol

Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol
#Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol #Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol We have very uniqufe Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol in bangladesh, We serve the best Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol with quality, Come and visit our Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol and hope you will find the best Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol in Sylhet If you need directiion for Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol please contact Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol * We have fresh Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol with best quality Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol * Our customers are always happy with our Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol * We have all healthy Goat Farm, ছাগল পালন, Black Bengol
Scroll to Top

Compare